আর্কাইভ  শনিবার ● ৪ ডিসেম্বর ২০২১ ● ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
আর্কাইভ   শনিবার ● ৪ ডিসেম্বর ২০২১

বগুড়া বিমানবন্দর চালুর উদ্যোগ

রবিবার, ১৪ নভেম্বর ২০২১, সকাল ০৬:৩১

ডেস্ক:  উত্তরাঞ্চলের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রাণকেন্দ্র হচ্ছে বগুড়া। এ জেলার সঙ্গে দেশের প্রতি জেলার সড়ক ও রেলপথের যোগাযোগ ব্যবস্থা থাকলেও দীর্ঘ কয়েক বছরেও চালু হয়নি বগুড়া বিমানবন্দর। শেখ রাসেলের নামে বগুড়া বিমানবন্দর চালুর স্বপ্ন এলাকাবাসীর। তারা বলেন, বগুড়া বিমানবন্দর (আইসিএও :ঠএইএ) বগুড়া শহরের সাত কিলোমিটার (৪.৩ মাইল) উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত। এটি বগুড়া সদর উপজেলার এরুলিয়া এলাকায়। অবকাঠামো নির্মাণের প্রায় দুই দশক পর এবার বগুড়া বিমানবন্দর চালুর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

বগুড়া-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ হাবিবুর রহমানসহ এলাকাবাসীর দাবি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের নামে বগুড়া বিমানবন্দরটি চালু হলে এটি স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

২০০৮ সাল থেকে বারবার নির্বাচিত হাবিবুর রহমান বলেন, বগুড়ায় বিমানবন্দর থাকলেও দীর্ঘ কয়েক বছরেও তা চালু হয়নি। সরকারের প্রতিটি বাজেটের সময় এ বিমানবন্দর চালুর বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। শেখ রাসেলের নামে দেশে কোনো বিমানবন্দর নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে শেখ রাসেলের নামে বগুড়া বিমানবন্দরটি চালুর দাবি জানিয়ে তিনি আরও বলেন, এতে স্বপ্ন পূরণ হবে বৃহত্তর বগুড়াসহ উত্তরাঞ্চলবাসীর।

জানা গেছে, অবকাঠামো নির্মাণের প্রায় দুই দশক পর এবার বগুড়া বিমানবন্দর চালুর উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরই মধ্যে এ বিষয়ে চার সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে বেসরকারি বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান জানান, কমিটির সদস্যরা বগুড়া বিমানবন্দর এলাকা পরিদর্শন করে প্রতিবেদন দেওয়ার পর এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে দেশের এভিয়েশন খাতে উন্নয়ন অব্যাহত আছে। বর্তমানে ঢাকা থেকে দেশের আটটি অভ্যন্তরীণ বিমানবন্দরের সঙ্গে বিমান চলাচল অব্যাহত রয়েছে। বিমানবন্দরগুলো হচ্ছে- ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, রাজশাহীর শাহ মখদুম বিমানবন্দর, যশোর বিমানবন্দর, সৈয়দপুর বিমানবন্দর, কক্সবাজার বিমানবন্দর ও বরিশাল বিমানবন্দর। এতে করে দিন দিন রাজস্ব আয় বাড়ছে বলেও জানান বেবিচকের চেয়ারম্যান।

বেবিচক কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আজ রোববার বগুড়া বিমানবন্দর এলাকা পরিদর্শন করে একটি প্রতিবেদন দাখিল করবেন কমিটির সদস্যরা। চলতি বছরের ১ মার্চ বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বরাবর বগুড়া বিমানবন্দর বাণিজ্যিকভাবে চালু করতে একটি লিখিত প্রস্তাবনা পাঠিয়েছেন বগুড়া-৭ আসনের সংসদ সদস্য রেজাউল করিম বাবলু। ওই আবেদনের আলোকে বগুড়া বিমানবন্দর চালুর বিষয়ে একটি কমিটি গঠন করে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ।

বেবিচকের কয়েকজন কর্মকর্তা জানান, উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার বগুড়ায় বাণিজ্যিকভাবে বিমান চলাচলের জন্য নব্বইয়ের দশকে বগুড়া সদর উপজেলার এরুলিয়া এলাকায় প্রায় ১১০ একর জায়গাজুড়ে বিমানবন্দরটি নির্মাণ করা হয়। আন্তর্জাতিকমানের এই বিমানবন্দর নির্মাণে খরচ হয় ২২ কোটি টাকা। কিন্তু ২৪ বছরেও বগুড়া বিমানবন্দর বাণিজ্যিকভাবে চালু হয়নি। ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকার বিমানবন্দরের কাজ সম্পন্ন করলেও ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার এটি চালু না করে বিমানবাহিনীর কাছে হস্তান্তর করে। এমন প্রেক্ষাপটে রাজস্ব আয় এবং দেশি-বিদেশি যাত্রীদের সুবিধার্থে বাণিজ্যিকভাবে বিমানবন্দরটি চালু করার সুপারিশ করেন স্থানীয় সংসদ সদস্যরা।

স্থানীয় পর্যটন ব্যবসাসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী ও সরকারের গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী প্রতিবছর গড়ে প্রায় পাঁচ হাজারের বেশি বিদেশি পর্যটক বগুড়ায় যান।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানায়, বগুড়ায় বিমানবন্দর স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয় ১৯৮৭ সালে। কিন্তু নানা জটিলতায় সেই উদ্যোগে ভাটা পড়ে। এরপর ১৯৯১-৯৬ মেয়াদে বিএনপি সরকারের শেষ দিকে এখানে বিমানবন্দর স্থাপনের নীতিগত সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়।

মন্তব্য করুন


Link copied